এই মৌসুমের সেরা খেলোয়ার নির্বাচিত হলেন সুয়ারেজ

লিভারপুল ডট কমের (www.liverpool.com) জরিপে ৬৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন এই উরুগুয়ান (Uruguyan), দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন অধিনায়ক স্টিভেন জেরার্ড (Steven Gerrard) এবং তৃতীয় হয়েছেন বিদায়ী জ্যামি ক্যারাঘার (Jamie Carragher)।

সেরা পাঁচের মধ্যে ছিলেন সেন্ট্রাল-ব্যাক ড্যানিয়েল এগ্যার (Daniel Agger) এবং জানুয়ারী মাসে দলে নতুন আসা খেলোয়ার ফিলিপ্পি কুটিন্হ (Philippe Coutinho)।

”আমার কাছে এটা ছিল অসাধারণ”, সুয়ারেজ (Suarez) LFC TV কে জানান বাৎসরিক পুরস্কার গ্রহনের সময়।

”এটা আমার জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং আমি জানি আমার ভক্তরা আমার সাথে আছে – যেটা আমার জন্য খুবই গুরত্বপূর্ণ ”।

”আমার খেলা আমার দলকে সাহায্য করছে এবং আমি আমার সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাই খেলার মাঠে। আমি আশা করেছিলাম আমাদের দল আরও ভালো অবস্থানে থাকবে কিন্তু আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি। পরের মৌসুমের জন্য আমরা প্রস্তুত”।

”আমাদের ম্যানেজার যখন যোগদান করলেন তখন এখানে তার জন্য কিছুটা কঠিন ছিল কারন হয়তো তিনি খেলোয়ারদের বা ক্লাবকে ভালো করে জানতেন না। প্রথম মৌসুমটা ম্যানেজারের জন্য ভালো ছিল খেলোয়ারদের মনোবলের জন্য। পরের মৌসুমটা আরও ভালো হবে”।

“আমার কাছে এটা ছিল অসাধারণ”

”এটা অবশ্যই সত্যি যে আরও অনেক কিছুই সামনে আসছে যেটা শুধু আমার কাছ থেকে নয় বরং ড্রেসিং ঘরের অন্যান্য খেলোয়ারদের কাছ থেকেও। সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।”

এই মৌসুমের সব খেলা মিলিয়ে সুয়ারেজ ৩০ গোল করে লিভারপুলের সর্বোচ্চ গোলদাতা, এর মধ্যে ২৩ টি গোল তিনি করেছেন প্রিমিয়ার লীগে।

পিএফএ বছরের সেরা খেলোয়ার নির্বাচনে এই ২৬ বছর বয়সী অন্তর্ভুক্ত হয়েছিলেন এবং দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন যেখানে টটেনহাম হটস্পার উইংগার গ্যারাথ বেল্ পিএফএ বছরের সেরা খেলোয়ার নির্বাচিত হন।

award500

এই মাসের শুরুতে লিভারপুল প্রতিবন্ধী ভক্ত সংস্থা অত্যন্ত আনন্দের সাথে সুয়ারেজ-কে তাদের বছরের সেরা খেলোয়ার হিসাবে নির্বাচন করেন।

২০১১ সালের জানুয়ারী মাসে ডাচ দল আয়াক্স থেকে আসা এই স্ট্রাইকার ৯৬ খেলায় ৫১ গোল করেন এই ক্লাবের হয়ে।

এবং সুয়ারেজ খুবই ব্যগ্র ছিলেন রেড্স ভক্তদের কৃতজ্ঞতা জানাতে তাকে এই সম্মান দেওয়ার জন্য।

তিনি আরও যোগ করেন, ”আপনাদেরকে অনেক ধন্যবাদ – এটা আমার জন্য অনেক বড় একটি পুরস্কার। আমি এই জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”