“আমি লিভারপুলে সাফল্য অর্জনের জন্য আরও ক্ষুধার্ত” – কোলো ট্যুরে

European Football - UEFA Europa League - Round of 16 2nd Leg - Manchester City v Sporting Clube de Portugal৩২ বছর বয়স্ক খেলোয়াড় কোলো ট্যুরে সম্প্রতি লিভারপুল এফসি ডট কমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে অল রেডসডের জন্য কি করতে চান, এনফিল্ডের তার যোগ দেওয়ার উদ্দেশ্য ইত্যাদি বিষয়ে কথা বলেন।

এই আইভোরিয়ান যিনি ম্যান সিটির হয়ে বিগত মৌসুমে মাত্র ১৫টি খেলায় মাঠে নামতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি বলেন, “লিভারপুল আমাকে দেখানোর সুযোগ দিয়েছে যে ৩২ বছর বয়স হলেও আমি এখনও অন্যতম সেরা রক্ষণভাগের খেলোয়াড় এবং আমি এর জন্য যুদ্ধ করব,”

“বিগত দুই বছর আমি ‘পার্ট টাইম’ খেলোয়াড় হিসাবে খেলেছি যা আমাকে চাঙ্গা ও আরও ক্ষুধার্ত করতে সাহায্য করেছে। আমি চেষ্টা করতে চাই ও লিভারপুলকে সাহায্য করতে চাই যেন তারা শিরোপা জিততে সক্ষম হয়।”

ট্যুরে প্রিমিয়ার লীগের সেরা খেলোয়াড়দের সাথে খেলেছেন, তিনি ম্যান সিটি ও আর্সেনাল উভয় দলের হয়ে শিরোপা জিতেছেন- তা সত্ত্বেও তিনি স্বীকার করেন অনুশীলন কেন্দ্রে আসার আগে তিনি উত্তেজনা অনুভব করছিলেন।

“এইটা অনেকটা নতুন পাটশালায় যোগ দেওয়ার মত”, তিনি বলেন। “আমি এইখানে আসার পরই স্টিভেন জেরার্ড আমার কাছে আসেন এবং আমাকে বলেন আমার কিছু দরকার থাকলে আমি যেন তার সাথে দেখা করি। এ থেকে পরিষ্কার বোঝা যায় এই দলটির গুণগত মান ও মানসিকতার দিক থেকে কোন পর্যায়ে আছে।”

“আমি এইখানে আসার পর ম্যানেজার আমাকে স্বাগতম জানিয়েছেন, সেই সাথে অন্যান্য খেলোয়াড়রাও। আমি আসলেই এমন একটি দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হতে চাই, যাদের মধ্যে আত্মার ও একাত্মতার সম্পর্ক বিদ্যমান এবং আমি এই জায়গাটাকে এই ভাবেই দেখি।”

“প্রথম দিনের অভিজ্ঞতায়, আমি আসলে অনেক সুখী”

ট্যুরে চেষ্টা করবেন তার ১১ বছরের খেলোয়াড়ি জীবনের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে জিমি ক্যারাঘারের খালি জায়গা পূরণ করতে। দলের জন্য তিনি কি করবেন এই প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “এইটা নিশ্চিত যে আমি অনেক কথা বলব! মাঠে যখন আমি থাকি তখন দলকে নেতৃত্ব দিতে পছন্দ করি, আমি খেলোয়ারদের সাথে কথা বলতে পছন্দ করি এবং সব কিছু গুছিয়ে নেই।”Kolo+Toure+Manchester+City+v+Aston+Villa+Capital+70V-vEcXRk-x

“আমি জানি জিমি ক্যারাঘার অবসর নিয়েছেন এবং সে কারনেই আমি এইখানে এসেছি। তিনি ক্লাবের একজন বিশাল মাপের খেলোয়াড় ছিলেন, তিনি ছিলেন একজন উঁচু মানের পেশাদার খেলোয়াড় এবং আমার জন্য একটি মহান উদাহরণ। আমি চেষ্টা করবো তাই করার যা তিনি করে গিয়েছেন কিন্তু আমার মনে হয় ব্যাপারটা অনেক কঠিন হবে।”

“এইটা একটা বাড়তি চাপ কারণ জিমির মত বড় মাপের খেলোয়াড়কে প্রতিস্থাপন করা অনেক কঠিন কাজ। আমি এর জন্য প্রস্তুত, কারণ আমি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পছন্দ করি।”

ট্যুরে লিভারপুল দলের একজন প্রবীণ খেলোয়াড় হিসাবে চুক্তি বদ্ধ হয়েছেন এবং দলে তার জায়গা ধরে রাখার জন্য স্কারটেল, এগার ও কোটস এর মত খেলোয়াড়দের সাথে নিয়মিত যুদ্ধ করতে হবে।

“আমি প্রতিদ্বন্দ্বিতা মোকাবেলা করে অভ্যস্ত”, তিনি বলেন। “যখন আমি আর্সেনালে ছিলাম তখন আমার সোল ক্যাম্পবেল, মার্টিন কেওন, টনি অ্যাডামস এর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হত- সেইটা অনেক কঠিন প্রতিযোগিতা ছিল।”

“দলের উন্নতির এক মাত্র পন্থা হচ্ছে এমন কিছু করা যাতে খেলোয়ারদেরকে নিজের জায়গার জন্য লড়াই করতে হয়”

কোল ট্যুরে তার আপন ভাই ইয়াইয়া ট্যুরের সাথে সিটিতে খেলতেন এবং তার এই লিভারপুলে যোগদান সংক্রান্ত ব্যাপারে তিনি তার ভাইয়ের সাথে এখনো কোনো আলোচনা করেননি।

তিনি ব্যাখ্যা করেনঃ “আমি আসলে এই ব্যাপারে তার সাথে কথা বলিনি, কারণ তিনি এখন ছুটিতে আছেন। কিন্তু এখন তাকে ঐখানে (ম্যানসিটি) একা খেলতে হবে। তার প্রতি আমার শুভ কামনা রইল কিন্তু আমি জানতাম আমার সিটি ত্যাগ করতে হবে। আমি এখন তার কাছের একটি ক্লাবে যোগ দিয়েছি এবং এই চলে আসাটা আমার জন্য দারুণ একটা ব্যাপার।”