“আমি সব সময় গণিত পছন্দ করি” – গ্লেন জনসন

Football - Liverpool Sign Glen Johnsen
ইংল্যান্ড আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলোয়াড় গ্লেন জনসন কিছুদিন আগে লিভারপুল এফসির ম্যাগাজিনে দেয়া সাক্ষাতকারে উল্লেখ করেন যে তিনি গণিত শাস্ত্রের উপর ডিগ্রি নিতে চান।

তিনি বলেন, “আমি নিজেকে চ্যালেঞ্জ করতে পছন্দ করি, নিজেকে উৎসাহিত করি ভিন্ন কিছু করার ও নিজেকে উন্নত করার।”

“আমি সব সময় গণিত পছন্দ করতাম। তাই চিন্তা করে দেখলাম ‘কেন নয়?’ আমি কোন বড় লক্ষ্যের দিকে অগ্রসর হচ্ছিনা, একি সময়ে সব কিছু এক সাথে শেষ করার তাগিদে নিজেকে চাপের মধ্যে ফেলে দিচ্ছি না।”

“একটি উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রি বেশ নমনীয়। আমি ৩টি ইউনিটের মধ্যে ২য় ইউনিটের একদম শেষ প্রান্তে আছি”

“দুনিয়াতে এমন কোন চাকরি নেই যেখানে গণিতশাস্ত্র সাহায্য করে না। সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবনে এমন কোন দিন নেই যেখানে আমরা অংক করি না, তা আমরা যে স্তরের মানুষই হই না কেন”

“আমার ফুটবল জীবনী শেষ হয়ে যাবার পর কি করব তা আমি জানি না কিন্ত আমি নিশ্চিত গণিতশাস্ত্রের জ্ঞান আমাকে সাহায্য করবে”

“আমি গণিতশাস্ত্র উপভোগ করতাম কিন্তু স্কুল আমার ভালো লাগত না। আমি জানি আমি আরও ভাল করতে পারতাম কিন্তু আমি এই ব্যাপারে অত আগ্রহ দেখাইনি যতটুকু আমার দেখানো দরকার ছিল। বেশ কয়েক বছর ধরে আমি ফিরে যেতে চাচ্ছিলাম।”

তিনি আরও বলেন, “এই মৌসুমের শুরুতে এক ব্যক্তির সাথে আলোচনা করি এবংনিজের মত বদলানোর আগেই মুহূর্তে সীধান্ত নেই আমি এটা চালিয়ে যাব। আমি ওইদিনই কোর্সে যোগ দেই এবং প্রয়োজনীয় সব সামগ্রী কিনে আনি এবং নিজেকে কাজে মনোনিবেশ করাই।”

“উমুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে আমি ঘরে বসে সব কিছু শিখছি, আমার শ্রেণীকক্ষে যাওয়ার দরকার হয় না। কিন্তু স্কুল ছেড়ে দেওয়ার পরে এই প্রথম আমি পরীক্ষা দিচ্ছি ও নিজ যোগ্যতা অর্জনের চেষ্টা করছি।”

তিনি আরও বলেন, “এই মুহূর্তে গণিতশাস্ত্র আমার জন্য উপযুক্ত, কারণ এই কোর্স অক্টোবরে শুরু হবে ও মে/জুন মাস নাগাদ শেষ হবে। আমি ছুটির দিনেগুলোতে কখনয়ই এই কাজ (অংক) করতে চাব না।”

“এটা ফুটবলের পাশাপাশি করাটা সহজ। যখন আমার অনুশীলন শেষ হয় ও বাচ্চারা ক্লাসে চলে যায়, তখন আমি বিছানায় বসে পড়াশুনা করি। দরকার হলে ভবিষ্যতে এটার জন্য আর একটু বেশি সময় ব্যয় করব।”

“কিন্তু এর জন্য আমি নিজের উপর কোন চাপ প্রয়োগ করব না এবং এটা যেন আমার দৈনদিন জীবনে প্রভাব না ফেলে সেটাও নিশ্চিত করব।”

“এটা আমাকে দেখিয়ে দিয়েছে আপনি জানেন না আপনার জন্য কি অপেক্ষা করছে এবং আপনি যদি মন প্রাণ দিয়ে কিছু করতে চান, আপনি তা করতে পারবেন।”